Home আন্তর্জাতিক আরব আমিরাত,সৌদি, মালয়েশিয়া,কাতার, আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সহ প্রবাসীদের নিয়ে শীর্ষ ১২ সংবাদ

আরব আমিরাত,সৌদি, মালয়েশিয়া,কাতার, আন্তর্জাতিক ফ্লাইট সহ প্রবাসীদের নিয়ে শীর্ষ ১২ সংবাদ

by admin
0 views

প্রবাসীদের নিয়ে আজকে থাকছে দেশজুড়ে এবং বিশ্বব্যাপী ঘটে যাওয়া গু’রুত্বপূর্ণ ঘটনা নিয়ে নিয়মিত আয়োজনে জানিয়ে দেওয়া হলো আজকের শীর্ষ ১২ সংবাদ। ১।ভোগ করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরাও। করো’নার আত’ঙ্ক ভুলে ইতালির অর্থনৈতিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে একের পর এক কার্যকরীউদ্যোগ নিয়ে চলেছেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে। সংক’টকালে সরকারি সহায়তা পেয়ে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়ায় এখন স্বস্তির নিঃশ্বা’স ফেলছেন

দেশটিতে বসবাসরত প্রবাসী করোনা কেটে গেলে বিভিন্ন দেশে ছুটিতে থাকা কর্মীদের আবারো চাকরিতে যোগদানের সুযোগ দেবে সৗদি আরব।সৌদি পাসপোর্ট অধিদফতর জেনারেল (জাওয়াজাত) গত মঙ্গলবার এ ঘোষনা দিয়েছে। করোনাকালে যে সব কর্মী ছুটি নিয়ে দেশে ফিরে এসেছিলেন এ ঘোষনায় তাদের স্বস্তি ফিরবে।কারণ বহু কর্মী দেশটির বিভিন্ন কোম্পানিতে কাজ করতেন। করোনা মহামারী আকার ধারণ করলে তারা ছুটি নিয়ে দেশে ফিরেছেন। পরে তারা চাকরি নিয়ে মারাত্মক চিন্তায় পড়েন। সেই চিন্তার অবসান ঘটেছে সৌদি পাসপোর্ট অধিদফতরের ঘোষনায়।এদিকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী

ইমরান আহমদ সৌদি কর্তৃপক্ষকে কর্মী ছাটাই ও চাকরিচ্যুত না করার জন্য একটি চিঠি দেন।ওই চিঠির পরই সৌদি থেকে এমন একটি ঘোষনা এলো। এই খবরটি বাংলাদেশের শ্রমবাজারের জন্য একটি আশার বিষয়।গত ২৬ মার্চ থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণার পর পাসপোর্ট অফিস বন্ধ হয়ে যায়। এরপর গত ৩১ মে থেকে আবার চালু হয়েছে।তখন থেকে শুধু এমআরপির নবায়ন কার্যক্রম শুরু হয়। যাদের অতি জরুরি প্রয়োজন শুধু তাদের পাসপোর্ট নবায়ন করে দেওয়া হচ্ছে। নতুন পাসপোর্ট ও ই-পাসপোর্টের ক্ষেত্রে বায়ো এনরোলমেন্টের দরকার হওয়ার কারণে বন্ধ রাখা রয়েছে। নতুন আবেদনকারীদের কোনো আবেদন নেওয়া হচ্ছে না।এতে যেখানে প্রতিদিন সারা দেশে ১৫ হাজারের মতো আবেদন জমা পড়ত, সেখানে তা নেমে এসেছে কয়েক শতে। ফলে

সরকারও রাজস্ব হারাচ্ছে। তবে পাসপোর্ট অফিস পুরোদমে চালুর প্রস্তুতি নিয়ে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ।গতকাল তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আমরা সীমিত আকারে অফিস চালাচ্ছি। যাতে জরুরি নবায়নের কাজগুলো করা যায়। আমরা পুরোদমে অফিস চালানোর প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি। সরকারের নির্দেশ পেলেই পুরোদমে কাজ শুরু করা হবে।’প্রবাসে আপনি কতটা কষ্ট করছেন- এ চিন্তাটা আপনার পরিবারের কেউ না করলেও প্রবাসে আপনি কত আয় করছেন এবং সেগুলো কিভাবে খরচ করছেন তার হিসাব সব সময় আত্মীয়-স্বজনরা নিতে ভুল করে না।পরিবার-পরিজন ছেড়ে অমানুষিক পরিশ্রম করাটা শারীরিক ও মানসিকভাবেই চরম যন্ত্রণার!প্রতিটি প্রবাসী পরিবারের জন্য কতটা ত্যাগ স্বীকার করছে এটা অনুভব করার সময় যেন কারও নেই৷ আয়ের হিসাব নিয়ে সবাই ব্যস্ত৷প্রতিমাসে প্রতিটি প্রবাসীরই থাকা-

খাওয়াসহ আনুষঙ্গিক খরচ রয়েছে৷ এ জন্য আয়ের একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ খরচ করতে হয়।প্রবাসীরা যতটা সম্ভব কম খরচ করার চেষ্টা করেন। অনেক সময় একই রুমে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে জীবন-যাপন করে খরচ কমায় পরিবারের কথা চিন্তা করে।কিন্তু আত্মীয়-স্বজন সেটা বেমালুম ভুলে গিয়ে বেতনের সম্পূর্ণটা মনে মনে দাবি করেন।কি এক অদ্ভুত পৃথিবীতে আমরা বাস করি! কেউ শুধু ত্যাগ স্বীকার করে আবার কেউ পুরোটাই শুধু ভোগ করার জন্যই প্রস্তুত থাকেন।কখনও কখনও প্রাপ্ত অর্থে তারা খুশি হয় না। যে যত বেশি আয় করে তার পরিবারের চাহিদার পরিমাণটাও সেই হারে বৃদ্ধি পায়।শুধু প্রবাসীরাই বুঝতে পারে অন্য প্রবাসীর মনের কষ্ট। এ ছাড়া প্রবাসীদের কষ্ট কেউ বুঝে না সবাই টাকা খোঁজে।১ জুলাই থেকে টার্কিশ এয়ারলাইন্স ফ্লাইট চালানোর জন্য

প্রস্তুত রয়েছে বলে বেবিচককে জানানো হয়েছে।অনুমতি পেলে রোববার, মঙ্গলবার ও শুক্রবার অর্থাৎ সপ্তাহে ৩ দিন ফ্লাইট চলাচল করবে।সেক্ষেত্রে বেবিচকের অনুমতি পেলে আমরা আগামী ৩ জুলাই (শুক্রবার) প্রথম ফ্লাইট পরিচালনা করবো।অনেকে আগে থেকেই বিভিন্ন গন্তব্যের টিকেট কিনে রেখেছেন।তাদের যাত্রার তারিখ রোববার মঙ্গলবার ও শুক্রবার ছাড়া অন্য তারিখে হয়, সেক্ষেত্রে তারা বিনামূল্যে তাদের টিকেটগুলো ৩ দিন দিনের যে কোন ১ দিন নিতে পারবেন।অবশেষে ১ জুলাই থেকে ভারতে শুরু হতে চলেছে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট।ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে প্রথম ফ্লাইট পরিচালনা করবে এয়ার ইন্ডিয়া।তার জন্য টিকিট বুকিং শুরু হবে ২৮ জুন থেকে। মোট আটটি উড়ান পরিষেবা ঘোষণা করেছে এয়ার ইন্ডিয়া।সবকটি বন্দে ভারত মিশনের

জন্যই।করোনা আবহে এই প্রথম অস্ট্রেলিয়ার উড়ান ঘোষণা করল এয়ার ইন্ডিয়া।যদিও এটি বন্দে ভারত মিশনের অন্তর্গত বলে জানানো হয়েছে। মোট ৮টি উড়ান চালাবে এার ইন্ডিয়া।১ জুলাই থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত দফায় দফায় চালানো হবে উড়ানগুলি।তার জন্য অনলাইনে টিকিট কাটতে হবে যাত্রীদের।বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ বাংলাদেশি এখন প্রবাস জীবনযাপন করেন। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, একজন বাংলাদেশি রেমিটেন্স যোদ্ধা প্রবাসে মারা গেলে তার লাশ পাঠাতে চাঁদা তুলতে হয়।অথচ দেশের অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করি আমরা প্রবাসীরা। দেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের অবদান ১৩ থেকে ১৪

শতাংশ;আমরা প্রবাসীরা জীবিকার প্রয়োজনে দূর প্রবাসে আছি। পরিবারে স্বচ্ছলতা আনার জন্য মাথার ঘাম পায়ে ফেলে আমাদের কষ্টার্জিত রেমিটেন্স দেশের অর্থনীতিকে করছে সমৃদ্ধ।প্রবাসীদের কল্যাণে কোনো আইন নেই, নেই কোনো কর্তৃপক্ষ। যা আছে তা মুখেমুখে। প্রবাসীদের মালামাল ব্যাগ কেটে রেখে দেয় কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারী।করোনা পরিস্থিতির কারণে দীর্ঘ ৩ মাস বন্ধ থাকার পর রবিবার থেকে ওমানের রাজধানী মাস্কাটের বাংলাদেশি অধ্যুষিত ওয়াদি কবির শিল্পাঞ্চল ও হামরিয়া এলাকার লকডাউন তুলে নেওয়া হচ্ছে।অন্যদিকে ওমানে রেস্তোঁরা ও ক্যাফেগুলির খাবার ডেলিভারি পেশা ওমানিকরণ করা হবে। বর্তমানে, রেস্তোঁরা ও ক্যাফে থেকে সকল খাদ্য বিতরণ প্রবাসীরা করছেন।বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) দেশে করোনাভাইরাসের সার্বিক পরিস্থিতির বিষয়ে সুপ্রিম

কমিটির একাদশ সংবাদ সম্মেলনে এসব সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করা হয়।ওমানের স্বাস্থ্য মন্ত্রী ড. আহমেদ আল সাইদী সাংবাদিকদের বলেন, রবিবার ওয়াদি কবির শিল্পাঞ্চল এবং হামরিয়াহ উভয়ই উন্মুক্ত করা হবে। করোনভাইরাস মামলার সংখ্যা বৃদ্ধির কারণে দুটি এলাকা বন্ধ রয়েছে।মন্ত্রী জানান, মাস্কট পৌরসভা সকাল ৭ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ পর্যন্ত ওয়াদি কবির শিল্পাঞ্চল এবং হামরিয়ায় বাণিজ্যিক কার্যক্রমে চালুর বিস্তারিত পরিকল্পনা ঘোষণা করবে।